Breaking News

‘আফ্রিদি আসলে জোকার’, মোদিকে নিয়ে বেফাঁস মন্তব্যের জবাবে গম্ভীর

পাকিস্তান জুড়ে মানবিক সহায়তা চালিয়ে যাচ্ছেন শহীদ আফ্রিদি। দুস্থ ও অভাবী মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে চালিয়ে যাচ্ছেন করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ। তারই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি পাকিস্তানের নিয়ন্ত্রিত আজাদ কাশ্মীরে ত্রাণ সহায়তা দিতে গিয়েছিলেন সাবেক এ তারকা অলরাউন্ডার।

কাশ্মীরে গরীব-দুঃখীদের সহায়তার ফাঁকে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে খোঁচা দিয়ে বিতর্ক ছড়িয়ে দেন আফ্রিদি। তিনি বলেন, ভারতের দখলে থাকা কাশ্মীরের বেশিরভাগ মানুষই পাকিস্তানের পক্ষে। জোর করে ওই এলাকা কব্জায় রেখেছে ভারত। দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ধর্মের রাজনীতি করছেন। তার মস্তিষ্কে করোনাভাইরাসের চেয়েও ভয়ঙ্কর রোগ আছে।

আফ্রিদির সেই তীর্যক মন্তব্যের ভিডিও গণমাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়। ব্যস, আফ্রিদিকে পেয়ে বসেন গৌতম গম্ভীর। পাকিস্তানি এ ক্রিকেটারের সঙ্গে ভারতের সাবেক ক্রিকেটার গম্ভীরের পুরনো শত্রুতা ফের মাথা চাড়া দিয়ে উঠে। আফ্রিদিকে পাল্টা কড়া জবাব দিতে ভুলেননি বিজেপি’র বর্তমান এ এমপি।

রোববার এক টুইটবার্তায় তিনি লেখেন– ১৬ বছরের বাচ্চা ছেলে আফ্রিদি বলছে, পাকিস্তানের ৭ লাখ সেনা রয়েছে। সেখানে ২০ কোটি মানুষ রয়েছে, সেদেশই আবার ৭০ বছর ধরে কাশ্মীরের পেছনে পড়ে রয়েছে। আর ভারতের কাছে ভিক্ষা চেয়েই চলেছে। আফ্রিদি, ইমরান খান ও বাজওয়ার মতো জোকার পাকিস্তানের লোকজনকে বোকা বানাতে মোদির নামে বিষ ছড়াচ্ছে। তবে জেনে রাখা ভালো– কাশ্মীর তারা কোনো দিনই পাবে না। বাংলাদেশের কথা মনে আছে নিশ্চয়ই?

শুধু গম্ভীরই নন; আফ্রিদির এ রকম জ্বালাময়ী মন্তব্যে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন ভারতের সাবেক অলরাউন্ডার যুবরাজ সিং এবং অফস্পিনার হরভজন সিং। কয়েক দিন আগেই বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে শহীদ আফ্রিদি ফাউন্ডেশনে সহায়তার জন্য আহ্বান জানান তারা। এবার তার সঙ্গে চিরতরে সম্পর্ক ছিন্ন করার হুমকি দিয়েছেন যুবি-ভাজ্জি।

তথ্যসূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া/ইন্ডিয়া টুডে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *