Breaking News

করোনার তাণ্ডবে মৃত্যু ছাড়াল ১ লাখ ৬৫ হাজার

মহামারি করোনাভাইরাসের ছোবলে মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। এ পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ লাখ ৬৫ হাজার ৫৯ জন। এখন পর্যন্ত এ ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে ২৪ লাখ ৬ হাজার ৯১০ জনের শরীরে।

সোমবার (২০ এপ্রিল) সকাল ৯টা পর্যন্ত এ সংখ্যা নিশ্চিত করেছে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের সংখ্যা ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটার। এরইমধ্যে ২১০টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়েছে করোনা ভাইরাস।

আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ৬ লাখ ১৭ হাজার ২৩ জন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন ১৬ লাখ ২৪ হাজার ৮২৮ জন। এদের মধ্যে ১৫ লাখ ৭০ হাজার ৬১০ জনের জনের শরীরে মৃদু সংক্রমণ থাকলেও এবং ৫৪ হাজার ২১৮ জনের অবস্থা গুরুতর।

ভাইরাসটির আক্রমণে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা প্রভাবশালী দেশ যুক্তরাষ্ট্রের। সেখানে ৭ লাখ ৬৩ হাজার ৮৩৬ জনের শরীরে ভাইরাসটি শনাক্ত হয়েছে। মারা গেছেন ৪০ হাজার ৫৫৫ জন।

মৃতের সংখ্যায় যুক্তরাষ্ট্রের পরে অবস্থানে রয়েছে ইউরোপের দেশ ইতালি। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ২৩ হাজার ৪৫৩ জন মানুষের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছে ১ লাখ ৭৮ হাজার ৯৭২ জন।

মৃত্যুর হিসাবে ইতালির পরের অবস্থানেই রয়েছে স্পেন। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ২০ হাজার ৪৩৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যার দিক থেকে অবশ্য ২য় অবস্থানে রয়েছে এ দেশটি। এখানে ১ লাখ ৯৮ হাজার ৬৭৪ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

মৃত্যুর তালিকার চার নম্বরে রয়েছে ফ্রান্স। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১৯ হাজার ৭১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৭৮ হাজার ৮৯৪ জন।

মৃত্যু তালিকায় ফ্রান্সের পরের অবস্থানে রয়েছে ইউরোপের আরেক দেশ ব্রিটেন। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১১ হাজার ৩২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ৮৮ হাজার ৬২১ জন।

এদিকে জার্মানিতে ১ লাখ ৪৫ হাজার ৭৪২ জন মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ৪ হাজার ৬৪২ জনের।

যুক্তরাজ্যে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ২০ হাজার ৬৭ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১৬ হাজার ৬০ জনের।

ভাইরাসটি প্রথম শনাক্ত হয় চীনে। সেখানে এ ভাইরাসে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৮৬ হাজার ৩০৬ জন এবং মারা গেছেন ৪ হাজার ৬৩২ জন।

এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছে ইরানে। এখানে এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৮২ হাজার ২১১ জন। মৃত্যু হয়েছে ৫ হাজার ১১৮ জনের।

বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত ভাইরাসটি শনাক্ত হয়েছে ২ হাজার ৪৫৬ জনের শরীরে। এদের মধ্যে মারা গেছেন ৯১ জন এবং সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ৭৫ জন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ২ হাজার ২৯০ জন।

সুত্র: সময়নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *