Breaking News

চাইলে মির্জা ফখরুলকেও ১০ টাকা কেজি চাল দেওয়া হবে: নৌ-প্রতিমন্ত্রী

করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় বিএনপি মাঠে না থেকে শুধু সরকারের সমালোচনা করে যাচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

একইসঙ্গে তিনি বিএনপি মহাসচিবের উদ্দেশে বলেছেন, মির্জা ফখরুল ইসলাম যদি মনে করেন, তিনি ১০ টাকা কেজির চালের আওতায় আসতে চান, রাস্তা পরিস্কার আছে। আপনি যদি ত্রাণ সাহায্যের আওতায় আসতে চান, সে রাস্তাও আমাদের পরিস্কার আছে। শুধু আপনাদের সম্মতি দরকার। আপনি সে ধরনের নিবেদন করলেই সরকার আপনাদের কাছে ত্রাণ ও ১০ টাকা কেজির চাল পৌঁছে দেবে।

শনিবার (০৯ মে) দুপুরে দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের ত্রাণ কমিটির উদ্যোগে শহরের গোর-এ- শহীদ ময়দানে ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে উদ্দেশ করে খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, কিছু মানুষ রাজনৈতিক স্বার্থ হাসিলের জন্য সরকারের বিষোদগার করছে। বিএনপি মহাসচিব বলছেন, দেশে ত্রাণকার্য সঠিকভাবে পরিচালিত হচ্ছে না। তাকে বলতে চাই,

আপনি প্রতিদিন মিডিয়ার সামনে বলছেন বর্তমান সরকার ত্রাণ পরিচালনা করতে পারছে না। অথচ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহ্বানে সাড়া দিয়ে সমাজের বিত্তশালীরাও এগিয়ে এসেছেন।

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘যতদিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে দেশ ততদিন পথ হারাবে না বাংলাদেশ। প্রধানমন্ত্রী ক্ষমতায় থাকাকালীন বাংলাদেশের কোনো প্রকার ক্ষতি হবে না। বাংলাদেশের যেকোনো বিপদে একমাত্র শেখ হাসিনাই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সাধারণ মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন। করোনাভাইরাস মোকাবিলায় বর্তমান সরকার ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করছে। আমরাও সরকারের যেকোনো কাজে ঐক্যবদ্ধ।

খালিদ মাহমুদ বলেন, ‘বর্তমানে দেশের মাঠে মাঠে কৃষকের ধান কাটার উৎসব চলছে। অথচ বিএনপি সরকারের আমলে এই উত্তরাঞ্চলে অসংখ্য কৃষককে গুলি করে মেরে ফেলা হয়েছিল। বিশ্বজুড়ে মহামারী আকার ধারণ করা করোনাভাইরাসের মধ্যেও বাংলাদেশের কৃষকরা অনেক ভালো আছে।’

তিনি বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ যে প্রতিশ্রুতি দেয়, তা বাস্তবায়ন করে। ১৯৪৯ সাল থেকে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ যা বলেছে, তার প্রতিটি কর্মসূচি বাস্তবায়ন করেছে।

বাংলাদেশের ইতিহাসে এত সুষ্ঠু ত্রাণ বিতরণ হয়নি উল্লেখ করে নৌ প্রতিমন্ত্রী বলেন, যেখানেই অভিযোগ পাওয়া গেছে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে ৫০ জনের মতো জনপ্রতিনিধি বরখাস্ত করা হয়েছে। তাদেরকে সরানো হয়েছে সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে। তদন্তের পর তাদের বিরুদ্ধে চূড়ান্ত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুল ইমাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে দিনাজপুর-১ আসনের এমপি মনোরঞ্জন শীল গোপাল, সংরক্ষিত আসনের এমপি জাকিয়া তাবাসসুম জুই, জেলা প্রশাসক মো. মাহামুদুল আলম, পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন, আওয়ামী লীগের ত্রাণ পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক আলতাফুজ্জামান মিতা, সদস্য সচিব ফারুকুজ্জামান চৌধুরী মাইকেল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সময়ের কন্ঠস্বর’/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *